মাইক্রোসফট এক্সেল ৩৫টি অসাধারণ সর্টকাট কীবোর্ড কমান্ড

মাইক্রোসফট বাংলা টিউটোরিয়াল ৩৫টি অসাধারণ এক্সেল সর্টকাট কীবোর্ড কমান্ড Banglaskill.com

মাইক্রোসফট এক্সেল বাংলা টিউটোরিয়াল ৩৫টি অসাধারণ সর্টকাট কীবোর্ড কমান্ড

মাইক্রোসফট বাংলা টিউটোরিয়াল ৩৫টি অসাধারণ এক্সেল সর্টকাট কীবোর্ড কমান্ড Banglaskill.com

মাইক্রোসফট এক্সেল প্রোগ্রামটি হিসাব-নিকাশের জন্য খুবই জনপ্রিয়। কাজের ক্ষেত্রে কাজের গতিকে তরান্বিত করার লক্ষ্যে কীবোর্ড সর্টকাট কমান্ড ব্যবহারের কোন বিকল্প নেই। এতে যেমন কাজ দ্রুত সম্পাদন এবং প্রোগ্রাম পরিচালনা সহজতর হয়। নিম্নে ৩৫টি অসাধারণ সর্টকাট কীবোর্ড কমান্ড (১০০% কার্যকরী) এর বণর্না দেয়া হলো:

পরবর্তী ওয়ার্কশিট/পূর্বের ওয়ার্কশিট এ যাওয়া

কাজের সময় একই ওয়ার্কবুকের বিভিন্ন শিটে যাওয়ার প্রয়োজন হওয়াটাই স্বাভাবিক। এজন্য সহজেই দ্রুত কাজটি সম্পাদন করা যায় কীবোর্ড সর্টকাট কী দ্বারা। পরবর্তী ওয়ার্কশিটে যাওয়ার জন্য কীবোর্ডের Ctrl + PgDn চাপুন এবং পূর্বের ওয়ার্কশিটে যাওয়ার জন্য কীবোর্ডের Ctrl + PgUp চাপুন।

পরবর্তী ওয়ার্কবুক/পূর্বের ওয়ার্কবুক এ যাওয়া

কাজের সময় একাধিক ওপেন করা ওয়ার্কবুক থাকলে এক ওয়ার্কবুক হতে অন্য ওয়ার্কবুকে যাওয়ার প্রয়োজন হলে দ্রুত কাজটি সম্পাদন করার জন্য কীবোর্ডের Ctrl + Tab চাপুন; উল্টো দিকে ফেরার জন্য কীবোর্ডের  Ctrl + Shift + Tab চাপুন।

রিবন প্রসারিত বা সংকুচন করা

ডকুমেন্টের ওপর ট্যাবের নিচে ৪টি রো এর সমন্বয়ে রিবন জায়গা দখল করে রাখে। ইচ্ছে করলে তা সংকুচন কিংবা পুনরায় প্রসারিত করা যায়। সংকুচনের জন্য কীবোর্ডের Ctrl + F1 চাপুন এবং প্রসারনের জন্য পুনরায় কীবোর্ডের Ctrl + F1 চাপুন।

Paste Special ডায়ালগ বক্স প্রদর্শন করানোর জন্য

কাজের প্রয়োজনে Paste Special ডায়ালগ বক্স প্রদর্শন করানোর জন্য কীবোর্ডের v+ Alt + V চাপুন। প্রদর্শিত বিভিন্ন অপশন হতে প্রয়োজনীয় অপশন নির্বাচন করে Ok ক্লিক করুন।

Autofilter এর ব্যবহার

ওয়ার্কশিটে ডানা এন্ট্রি করার পর তা যদি অটো ফিল্টার করার প্রয়োজন হয় তবে কীবোর্ডের Ctrl + Shift + L চাপুন। অটো ফিল্টার বাদ দিতে চাইলে পুনরায় কীবোর্ডের Ctrl + Shift + L চাপুন।

সিলেক্ট অল কমান্ডের ব্যবহার

এ কমান্ড সম্পর্কে অবগত নহেন এমন কম্পিউটার ব্যবহারকারী পাওয়া কঠিন। যা হোক এক্সেলে এ কমান্ডের একাধিক কার্যকারীতা দেখে সত্যিই আপনি বিস্মিত হবেন। ধরুন ওয়ার্কশিটের খালি সেলে কার্সর রেখে Ctrl +A চাপলে পুরো ওয়ার্কশিট নির্বাচন হবে। আবার কোন রেঞ্জের ভেতর কার্সর রেখে Ctrl +A চাপলে রেঞ্জটুকু নির্বাচন হবে। এক্সেলে টেবিলের ক্ষেত্রে প্রথমবার Ctrl +A চাপলে টেবিলের ডাটাসমূহ নির্বাচন হবে। দ্বিতীয়বার Ctrl +A চাপলে টেবিলের হেডিং সিলেক্ট হবে এবং তৃতীয়বার Ctrl +A চাপলে পুরো ওয়ার্কশিট নির্বাচন হবে।

ডাটা রেঞ্জের ভেতর কার্সর মুভ করা

অনেক সময় বড় বড় লিস্ট অথবা টেবিল নিয়ে কাজ করার প্রয়োজন হয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে কার্সর মুভমেন্ট সত্যিই কঠিন হয়ে পড়ে। কিন্তু কীবোর্ড শর্টকাট কমান্ড Ctrl +Any Arrow Key দ্বারা সহজেই তা করা সম্ভব। নিচের শর্টকাট কমান্ডগুলো লক্ষ্য করুন:

কার্সর ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার ডানে নিতে = Ctrl + Right arrow
কার্সর ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার বায়ে নিতে = Ctrl + Left arrow
কার্সর ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার ওপরে নিতে = Ctrl + Up arrow
কার্সর ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার নিচে নিতে = Ctrl + Down arrow

নোট: এক্সেল ১ সেকেন্ডেরও কম সময়ে ১০,৪৮,৫৭৬টি রো অতিক্রম করতে পারে। ধরুন ১ ইঞ্চিতে যদি ৬টি রো থাকতে পারে, তবে- ১০,৪৮,৫৭৬ রো/৬ = ১,৭৪,৭৬৩ ইঞ্চি/১২ = ১৪,৫৬৪ ফুট/৫২৮০ = ২.৭৬ মাইল। অতএব বুঝতে পারলেন এক্সেলে এ শর্টকাট কমান্ড এর গতি হলো ঘণ্টায় প্রায় ১০,০০০ মাইল।

শর্টকাট ব্যবহার করে একাধিক কলাম কিংবা রো সিলেক্ট করা

পূর্বেই আমরা জেনেছি কি করে সহজে ওয়ার্কশিটে কার্সর মুভমেন্ট করা যায়। কিন্তু যখন বড় কোন রেঞ্জ কিংবা টেবিলের শেষপ্রান্ত পর্যন্ত সিলেক্ট করার প্রয়োজন হয় তখন এ কমান্ড সত্যিই খুবই কার্যকর।

ধরুন কাজের প্রয়োজনে একত্রে ৫,০০০ রো সিলেক্ট করা দরকার। এ কাজটি কীবোর্ডের সিফট ও এ্যারো কী ব্যবহার করে করা যেমন বিরক্তিকর তেমনি সময় সাপেক্ষ। এজন্য কীবোর্ডের Shift+Ctrl+Arrow Key চাপুন আর দেখুন কেমন জাদুর মত সহজেই প্রয়োজনীয় রো সিলেক্ট হয়ে গেছে।

ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার ডানের শেষ পর্যন্ত নির্বাচন করতে = Shift+Ctrl+Right arrow
ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার বায়ের প্রথম পর্যন্ত নির্বাচন করতে = Shift+Ctrl+Left arrow
ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার ওপরের প্রথম পর্যন্ত নির্বাচন করতে = Shift+Ctrl+Up arrow
ডাটারেঞ্জ কিংবা টেবিলের সবার নিচের শেষ পর্যন্ত নির্বাচন করতে = Shift+Ctrl+Down arrow

ওয়ার্কশিটের প্রথম ও শেষ সেলে কার্সর বা সেল পয়েন্টার স্থাপন করা

বিশাল ওয়ার্কশিটে কাজ করার সময় এ কমান্ড ব্যবহার করে ওয়ার্কশিটের প্রথম সেলে কিংবা শেষ সেলে কার্সর স্থাপন করতে পারবেন। কার্সর প্রথম সেলে স্থাপন করতে কীবোর্ডের Ctrl+Home এবং শেষ সেলে স্থাপন করতে কীবোর্ডের Ctrl+End কমান্ড ব্যবহার করুন।

নোট: এক্ষেত্রে আপনি ওয়ার্কশিটে যে জায়গাটুকুর মধ্যে কাজ করেছেন এ কমান্ড দ্বারা সে জায়গাটুকুর মধ্যে কার্সর মুভমেন্ট করতে পারবেন। ওয়ার্কশিটের শেষ কলামে কার্সর স্থাপন করতে কীবোর্ডের End চাপুন ও তারপর Right Arrow কী চাপুন এবং ওয়ার্কশিটের শেষ রোতে কার্সর স্থাপন করতে কীবোর্ডের End চাপুন ও তারপর Down Arrow কী চাপুন। প্রয়োজনে একাধিকবার চাপতে হতে পারে।

ওয়ার্কশিটের শেষ সেলে সেল পয়েন্টার স্থাপন করা

এক্ষেত্রে শেষ সেল বলতে বলা হয়েছে ওয়ার্কশিটের যে পর্যন্ত  ডাটা এন্টি করেছেন। কীবোর্ডের Ctrl+End চাপুন; লক্ষ্য করুন সেল পয়েন্টার ওয়ার্কশিটের শেষ সেলে অবস্থান করছে। কীবোর্ডের Ctrl+Home চেপে ওয়ার্কশিটের প্রথম সেলে যাওয়া যায়।

এক্সেল প্রোগ্রামে ফাইন্ডিং এবং রিপ্লেস করা

এক্সেল ডকুমেন্টে কোন শব্দ কিংবা বাক্য খুঁজে বের করার জন্য কীবোর্ডের Ctrl+F চাপুন এবং অন্য শব্দ বা বাক্য দ্বারা প্রতিস্থাপন করতে চাইলে কীবোর্ডের Ctrl+H চাপুন।

কলাম এবং রো সিলেক্ট করা

কার্সর অবস্থিত কলাম সিলেক্ট করার জন্য কীবোর্ডের Ctrl+Spacebar এবং কার্সর অবস্থিত রো সিলেক্ট করার জন্য কীবোর্ডের Shift+Spacebar এর ব্যবহার সত্যিই আপনার কাজকে ত্বরাণ্বিত করবে। কলাম এবং রো সিলেক্ট থাকাবস্থায় কীবোর্ডর Shift কী চেপে ধরে প্রয়োজনীয় এ্যারো কী দ্বারা একাধিক কলাম ও রো সিলেক্ট করা যাবে। যেমন আপনি ৫নং রোতে অবস্থান করছেন। এবারে Shift+Spacebar চাপুন ৫নং রো সিলেক্ট হবে, এখন Shift কী চেপে ধরে Up কী দ্বারা অবস্থিত রো এর ওপরে এবং Down এ্যারো কী দ্বারা অবস্থিত রো এর নিচে একাধিক রো সিলেক্ট করতে পারবেন।

নোট: এক্সেলে টেবিল ফরমেটে থাকাবস্থায় উপরোক্ত কমান্ডসমূহ শুধুমাত্র টেবিলের মধ্যেই কার্যকর হবে, পুরো ওয়ার্কশিটে কার্যকর হবে না। কীবোর্ড দ্বারা কলাম ও রো সিলেক থাকাবস্থায় Insert, Delete, Hide এবং Unhide কমান্ডসমূহের কীবোর্ড সর্টকাট ব্যবহার করতে পারবেন।

ওয়ার্কশিটের বিভিন্ন রেঞ্জ একসাথে সিলেক্ট করা

সাধারণ কোন রেঞ্জ সিলেক্ট করার অন্য কোন রেঞ্জ সিলেক্ট করলে পূর্বের রেঞ্জ ডিসিলেক্ট হয়ে যায়। একাধিক রেঞ্জ সিলেক্ট করার জন্য প্রথম রেঞ্জটি সিলেক্ট করুন এবং কীবোর্ডের Ctrl কী চেপে ধরে মাউস দ্বারা ড্রাগ করে পরবর্তী রেঞ্জ সিলেক্ট করুন। এভাবে একাধিক রেঞ্জ সিলেক্ট করতে পারবেন।

ওয়ার্কশিটে একটিভ (কার্সর অবস্থিত সেল) সেল দেখা

প্রদর্শিত পর্দায় যদি সেল পয়েন্টার কিংবা কার্সর দেখতে না পান। তবে সহজেই যে কোন এ্যারো কী চেপে তা প্রদর্শিত করতে পারবেন (এবং একই সাথে নতুন সেলে যেতে পারবেন)। ফর্মূলা বারে অবস্থিত Name Box থেকে কার্সর অবস্থিত সেল সম্পর্কে অবহিত হতে পারবেন। এছাড়াও কীবোর্ডের Ctrl+Backspace (Mac: Command+Delete) ব্যবহার করে কার্সর অবস্থিত সেলটিকে পর্দার ঠিক মাঝ বরাবর অবস্থিত করাতে পারবেন।

Go To ডায়ালগ বক্স প্রদর্শন করা

কীবোর্ডের Ctrl+G চাপুন। Go To ডায়ালগ বক্স প্রদর্শিত হবে। এবারে Special বাটনে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় অপশন নির্বাচন করে Ok ক্লিক করুন।

একই সেলে নতুন লাইন শুরু বা তৈরি করা

সাধারণত এক্সেলে কোন লাইন লিখে এন্টার কী চাপলে কার্সর পরবর্তী রোতে অবস্থান করবে। কিন্তু একি সেলের ভেতর নতুন লাইন শুরু করতে প্রয়োজনীয় লাইন শেষ করে কীবোর্ডের Alt+Enter (Mac: Control+Option+Return) চাপুন এবং পরবর্তী লাইন টাইপ করুন। এভাবে এক্সেল একই সেলে একাধিক লাইন লিখতে পারবেন।

একাধিক সেলে একই ভেল্যু ইনপুট করা

ধরুন আমরা সকল সেলে ১০০ ইনপুট করতে চাই।যে সেলগুলোতে একই ভেল্যু ইনপুট করতে চাই তা সিলেক্ট করুন এবং কীবোর্ড দ্বারা ১০০ টাইপ করুন এবং কীবোর্ডের Ctrl+Enter চাপুন। দেখুন চোখের পলকে সিলেক্টকৃত সেলসমূহ ১০০ দ্বারা পূর্ণ হয়েছে এবং সিলেক্টকৃত অবস্থায় আছে। এছাড়াও কোন সেলে ডাটা ইনপুট করে যদি ঐ সেলেই অবস্থান করতে চান তবে Ctrl+Enter কী চাপুন।

ওয়ার্কশিটে বর্তমান সময় এবং তারিখ সংযোজন করা

যে সেলে বর্তমান সময় সংযোজন করতে চান সে সেলে কার্সর রেখে কীবোর্ডের Ctrl+; এবং তারিখ সংযোজন করতে চান সে সেলে কার্সর রেখে কীবোর্ডের Ctrl+Shift+: চাপুন।

আপনি যদি একই সাথে সময় ও তারিখ সংযোজন করতে চান তবে সময় সংযোজন করে একবার Spacebar চেপে তারিখ সংযোজন করুন।

ফিল ডাউন / ফিল রাইট

ওয়ার্কশিটের নির্বাচিত সেলের ডাটা নিচের দিকে ফিল করার জন্য কীবোর্ডের Ctrl+D চাপুন এবং ডানের দিকে ফিল করার জন্য কীবোর্ডের Ctrl+R চাপুন।

যে কোন ফরমেট সম্পাদন করা

Ctrl+1 কীবোর্ড সর্টকাটটি সত্যিই একটি কার্যকরী সর্টকাট। কারণ এর দ্বারা প্রদর্শিত ডায়ালগ বক্স হতে প্রায় সকল ধরণের ফরমেটই সম্পাদন করতে পারবেন। গ্রাফ কিংবা চার্ট নিয়ে কাজ করার সময় চার্টের বিভিন্ন উপাদান সিলেক্ট করে Ctrl+1 সর্টকাট কীবোর্ড দ্বারা ফরমেট সম্পাদন করতে পারবেন। এমনকি shapes and smart art নিয়ে কাজ করার সময়ও এ কমান্ড ব্যবহার করে ফরমেট সম্পাদন করতে পারবেন।

বোল্ড, ইটালিট এবং আন্ডারলাইন এর ব্যবহার

আমরা অহরহই এ কমান্ডগুলো ব্যবহার করে থাকি।

  • Bold = Ctrl + B (Mac: Command + B)
  • Italic = Ctrl + I (Mac: Command + I)
  • Underline = Ctrl + U (Mac: Command + U)

নোট: কোন সেলের ওপর ওপরের কমান্ডসমূহ ব্যবহার করলে তা ঐ সেলের সকল লেখার ওপর তা প্রয়োগ হবে। কিন্তু ইচ্ছে করলে আপনি প্রতিটি শব্দের ওপর ভিন্ন ফরমেট ব্যবহার করতে পারবেন। প্রয়োজনীয় সেলে কীবোর্ডের F2 কী চাপুন। এবারে কীবোর্ড কিংবা মাউস দ্বারা প্রয়োজনীয় লেখা সিলেক্ট করে কমান্ডসমূহ ব্যবহার করুন এবং প্রয়োজনীয় কার্য সম্পাদন করে কীবোর্ডের Enter চাপুন।

ওয়ার্কশিটের নাম্বার বিভিন্ন ফরমেটে পরিবর্তন করা

প্রয়োজনীয় নম্বর বা নম্বরসমূহ নির্বাচন করুন। অতপর নিচে প্রদর্শিত প্রয়োজনীয় সর্টকাট দিয়ে নাম্বারের ফরমেট পরিবর্তন করুন।

General ফরমেট করতে = Ctrl + Shift + ~
Currency ফরমেট করতে  = Ctrl + Shift + $
Percentage  ফরমেট করতে = Ctrl + Shift + %
Scientific  ফরমেট করতে = Ctrl + Shift + ^
Date ফরমেট করতে  = Ctrl + Shift + #
Time ফরমেট করতে  = Ctrl + Shift + @
Number ফরমেট করতে  = Ctrl + Shift +!

এ্যাকটিভ সেল শুদ্ধ (Edit) করা

যে সেলে কার্সর রয়েছে সেই সেলকে এ্যাকটিভ সেল বলা হয়। মাউস দ্বারা যে সেল শুদ্ধ করতে চান তার ওপর ডাবল ক্লিক করুন অথবা কিবোর্ডের F2 কী চাপুন। এবারে প্রয়োজনীয় এডিটিং সম্পাদন করে কীবোর্ডের এন্টার চাপুন।

Absolute / Relative রেফারেন্স এর ব্যবহার

ফর্মূলা ও এড্রেস নিয়ে হরহামেশাই কাজ করার প্রয়োজন হয়ে থাকে। সেল এড্রেসকে absolute / relative রেফারেন্স দেয়ার জন্য ডাটা এডিট মোডে সেল এড্রেসটি সিলেক্ট করুন এবং কীবোর্ডের F4 চাপুন। একাধিকবার চাপলে যে পরিবর্তন পরিলক্ষিত হবে তা হলো: ধরুন আপনি A1 সিলেক্ট করেছেন; এবারে প্রথমবার F4 চাপলে $A$1, দ্বিতীয়বার A$1, তৃতীয়বার $A1, এবং চতুর্থবার A1 দেখাবে।

নোট: ল্যাপটপে fn + F4 কী চাপার প্রয়োজন হতে পারে যদি fn কী দ্বারা ব্রাইটনেস কিংবা ভলিয়ম ইত্যাদি কন্ট্রোল করা হয়ে থাকে।

 নির্বাচিত সেলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগফল নামানো

যে সেলসমূহের ডানে অথবা নিচে যোগফল নামাতে চান সেই সেলে কার্সর রাখুন এবং কীবোর্ডের Alt+= চাপুন। বিস্তারিত জানতে ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখুন।

সেলে অবস্থিত ফর্মূলা প্রদর্শন ও লুকানো

সাধারণ সেলের ভেতর কোন ফর্মূলা দেখা যায় না দেখা যায় ফর্মূলার ফলাফল। কোন সেলের ভেতর কি ফর্মূলা ব্যবহৃত হয়েছে তা দেখার জন্য ঐ সেলে কার্সর রাখলে এড্রেসবারে তা দেখা যাবে কিংবা কীবোর্ডের F2 চাপুন ব্যবহৃত ফর্মূলা দেখা যাবে। কিন্তু যদি ওয়ার্কশিটের সকল ফর্মূলা দেখতে চান তবে কীবোর্ডের Ctrl+` চাপুন। ফর্মূলা প্রদর্শন বন্ধ করতে চাইলে পুনরায় কীবোর্ডের Ctrl+` চাপুন।

ফাংশনসমূহের আর্গূমেন্ট যুক্ত করা

অনেক সময় প্রয়োজনীয় ফাংশনসমূহের আর্গূমেন্ট ভুলে যাই। সেক্ষেত্রে কীবোর্ডের Ctrl+Shift+A চাপুন। এবারে প্রত্যেক আর্গূমেন্টের ওপর ডাবল ক্লিক করে প্রয়োজনীয় সেল এড্রেস কিংবা ভেল্যু সংযুক্ত করতে পারবেন।

ফর্মূলা`র ভেতর ডিফাইনকৃত নেম পেস্ট করা

ডকুমেন্টে জটিল ফর্মূলা নিয়ে কাজ করার সময় কোন রেঞ্জকে ডিফাইনকৃত নেম ব্যবহার করার প্রয়োজন হয়। সেক্ষেত্রে একাধিক নেম মনে নাও থাকতে পারে, আর এজন্য আপনাকে ফর্মূলা লেখা বাদ দিয়ে নেম লিস্ট দেখার প্রয়োজন হয়ে পড়বে। আপনাকে ফর্মূলাটি নতুন করে আবার লিখতে হবে। কিন্তু যখন নেম প্রয়োজন হবে তখন কীবোর্ডের F3 কী চাপুন এবং প্রয়োজনীয় নেম এর ওপর ক্লিক করে Ok ক্লিক করুন। লক্ষ্য করুন আপনি এডিটিং মোডেই অবস্থান করছেন, তাই নতুন করে ফর্মূলা লেখার প্রয়োজন হবে না।

এক্সেল ফাংশন স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংযুক্ত করা

এক্সেল ওয়ার্কশিটে যখন কোন ফাংশন যুক্ত করবেন তখন স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রয়োজনীয় ফাংশনসমূহের লিস্ট প্রদর্শিত হয়। কিন্তু কি করে তা ব্যবহার করবেন এবং এডিটিং মোডে অবস্থান করবেন। এক্ষেত্রে কীবোর্ডের Tab কী চাপুন। ফাংশনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংযুক্ত হবে।

এক বা একাধিক কলাম ও রো সংযুক্ত (Insert) করা

যে কলাম/রো বা কলাম/রোগুলো ডানে নতুন কলাম/রো বা কলাম/কলামগুলো যুক্ত করতে চান তা সিলেক্ট করুন। কীবোর্ডের Ctrl+Shift++ চাপুন। সিলেক্টকৃত কলাম/রো বা কলাম/রোগুলোর ডানে নতুন কলাম/রো যুক্ত হবে।

এক বা একাধিক কলাম ও রো মুছে ফেলা বা ডিলিট করা

যে কলাম/রো বা কলাম/রোগুলো মুছে ফেলতে চান তা সিলেক্ট করুন। কীবোর্ডের Ctrl+- চাপুন। সিলেক্টকৃত কলাম/রো বা কলাম/রোগুলো মুছে যাবে।

নোট: কলাম সিলেক্ট করার জন্য কীবোর্ডের Shift+Spacebar চাপুন এবং রো সিলেক্ট করার জন্য কীবোর্ডের Ctrl+Spacebar চাপুন।

এক বা একাধিক কলাম লুকানো এবং প্রদর্শন করা

যে কলাম বা কলামগুলো লুকাতে চান তা সিলেক্ট করুন। কীবোর্ডের Ctrl+0 চাপুন। সিলেক্টকৃত কলাম বা কলামসমূহ লুকিয়ে যাবে। লুকানো কলাম বা কলামসমূহ প্রদর্শন করার জন্য যে কলাম বা কলামসমূহ লুকিয়েছেন তার আগের ও পরের কলামসহ সিলেক্ট করুন। অতপর কীবোর্ডের Ctrl+Shift+0 চাপুন।

এক বা একাধিক রো লুকানো এবং প্রদর্শন করা

যে রো বা রোগুলো লুকাতে চান তা সিলেক্ট করুন। কীবোর্ডের Ctrl+9 চাপুন। সিলেক্টকৃত রো বা রোসমূহ লুকিয়ে যাবে। লুকানো রো বা রোসমূহ প্রদর্শন করার জন্য যে রো বা রোসমূহ লুকিয়েছেন তার আগের ও পরের রোসহ সিলেক্ট করুন। অতপর কীবোর্ডের Ctrl+Shift+9 চাপুন।

বর্তমান সিটে চার্ট যুক্ত করা

কার্সর অবস্থিত সিটকে বর্তমান বা কারেন্ট সিট হিসেবে বলতে চেয়েছি। চার্ট তৈরি করার প্রয়োজনীয় ডাটা সিলেক্ট করুন। অতপর কীবোর্ডের Alt+F1 চাপুন। এক্সেল বর্তমান সিটেই চার্ট প্রদর্শন করবে।

নতুন ওয়ার্কশিটে চার্ট তৈরি করা

যে ডাটা দ্বারা চার্ট তৈরি করবেন তা সিলেক্ট করুন এবং কীবোর্ডের F11 কী চাপুন। এবারে লক্ষ্য করুন নতুন সিটে চার্টটি প্রদর্শিত হচ্ছে।

মাইক্রোসফট এক্সেল বাংলা টিউটোরিয়াল ৩৫টি অসাধারণ সর্টকাট কীবোর্ড কমান্ড নিয়ে টিউন আজকের মত এখানেই শেষ করছি। এতক্ষণ আমাদের সাথে ধৈর্য ধরে থাকার জন্য অনেক ধন্যবাদ। পরবর্তীতে ভিন্ন টিউটোরিয়াল নিয়ে উপস্থিত হবো, ইনশাআল্লাহ্। টিউনটি ইনফরমেটিক হলে বন্ধু ও পরিচিত মহলে শেয়ার করুন। ভুল পেলে অনুগ্রহ করে কমেন্টস করে জানাবেন।

 

17 comments

  1. Pingback: Sheikh Hasina University Job Circular 2022 - BD Google

  2. Pingback: Uttara High School and College Job Circular 2022 - BD Google

  3. Pingback: Concern Worldwide Job Circular 2022 - BD Google

  4. Pingback: BUET Job Circular 2022 - Bangladesh University of Engineering and Technology - BD Google

  5. Pingback: বাচ্চাদের ঘর কেমন করে সাজাবেন - Engineers BD

  6. Pingback: Eskayef Pharmaceuticals Job Circular 2022 - BD Google

  7. Pingback: 23 x 35 New Modern House Plan - Engineers BD

  8. Pingback: 22 x 30 2BHK House Plan - Engineers BD

  9. Pingback: DOL Starter (Direct Online Starter) Details: Including Workign Principle & Circuit Diagram - Engineers BD

  10. Pingback: How to Add Music to Your Facebook Post - Topic Area

  11. Pingback: 10 Top Anglican Youtube Channels for Anglicans To Follow in 2022 – URL List

  12. Pingback: 22 Top Vastu Blogs To Follow in 2022 – URL List

  13. Pingback: কেটকে ভেট কিমের - Star Info BD

  14. Pingback: সেলেনা গোমেজ - Star Info BD

  15. Pingback: জাস্টিন বিবার - Star Info BD

  16. Pingback: রায়ান গসলিং Ryan Gosling - Star Info BD

  17. Pingback: মাইলি সাইরাস Miley Cyrus - Star Info BD

Leave a Reply